নতুন মায়েদের ৩ প্রশ্ন, সহজ সমাধান

0
120

নতুন মায়েদের খুব কমন প্রশ্ন, বুকের দুধ খেয়ে বাচ্চার পেট ভরছে কিনা বুঝব কীভাবে? এক্ষেত্রে আমরা মায়েদের কাউন্সেলিং করে থাকি। একজন মায়ের জমজ বাচ্চা থাকলেও ছয় মাস পর্যন্ত তাদের বুকের দুধই খাওয়াতে হবে এবং সে ক্ষমতা মায়ের থাকে। তাহলে একজন মা কীভাবে বুঝবে তার বাচ্চা পর্যাপ্ত দুধ পাচ্ছে কিনা?

এ ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছেন স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. নাঈমা সুলতানা। আসুন জেনে নিই বিশেষজ্ঞ এ চিকিৎসকের গুরুত্বপূর্ণ নানা পরামর্শ।

প্রথম কথা হলো, মা নিজেই খাওয়ানোর সময় এটি বুঝতে পারবেন। এরপরও দুধ টানার সময় বাচ্চা টিপটিপ হাসি দিলে বুঝতে হবে সে তৃপ্ত অর্থাৎ তার পেট ভরছে। দ্বিতীয় কথা হলো, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একটা বাচ্চা ৬-৮ বার প্রস্রাব করলে বুঝতে হবে সে পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবার পাচ্ছে। অবশ্য অতিরিক্ত গরমে এর ব্যতিক্রম হতে পারে। গরমে বাচ্চাদের প্রস্রাব কম হয়। এর কারণ হলো, নিঃশ্বাস ও চামড়ার সাথে আমাদের শরীর থেকে কিছুটা পানি ও বর্জ্য পদার্থ বের হয়ে যায়। তীব্র গরমে বাচ্চা স্বাভাবিকের চেয়ে প্রস্রাব কম করবে, এতে উদ্বেগের কিছু নেই। দিনে ৬-৮ বার প্রস্রাব করলে তাকে অন্য কোনো তোলা খাবার দেয়ার দরকার নেই। এমনকি এক ফোঁটা পানিও না। আমি আবারো বলছি, ছয় মাস পর্যন্ত বাচ্চাকে শুধুমাত্র মায়ের দুধ খাওয়াতে হবে।

বাচ্চা প্রস্রাব ঠিকঠাক করলেও ঘনঘন কান্না করছে। এতে নতুন মায়েদের মনে বাচ্চার ক্ষুধা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়। এমন সন্দেহ হলে বাচ্চার ওজন তদারকি করতে হবে। এক্ষেত্রে প্রতি সপ্তাহে একবার ডিজিটাল মেশিনে বাচ্চার ওজন মেপে রেকর্ড রাখতে হবে। একটি বাচ্চার প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ৪০ গ্রাম ওজন বাড়বে। এভাবে প্রতি সপ্তাহে ১৫০-২৫০ গ্রাম পর্যন্ত বাচ্চার ওজন বাড়ে, তাহলে বুঝতে হবে বাচ্চাটি পর্যাপ্ত পরিমাণে মায়ের দুধ পাচ্ছে।

নতুন মায়েদের আরেকটি প্রশ্ন, তাদের বাচ্চা সারা দিনই ঘুমায় কেন? আমাদের বুঝতে হবে, একটা বাচ্চার দিনে ১৮ ঘণ্টা ঘুমানো স্বাভাবিক ব্যাপার। কিছু কিছু বাচ্চা এর থেকেও বেশি ঘুমায়। নবজাতকরা ১৮ ঘণ্টা বা তার চেয়ে কমবেশি ঘুমালে চিন্তার কিছু নেই।

নতুন মায়েরা আরেকটি প্রশ্ন করেন, তাদের বাচ্চা বেশি বেশি পায়খানা করছে। এটি ক্ষতির কিনা? এক্ষেত্রে আমরা জিজ্ঞেস করে থাকি, দিনে বাচ্চা কতবার পায়খানা করছে? মায়েরা বলেন থাকেন, খাওয়ানোর কিছুক্ষণ পরই পায়খানা করে। এমন হলে কিছু বিষয় খেয়াল করতে হবে। তাহলো, বাচ্চা ঠিকঠাক হাসে কিনা, মায়ের দুধ টেনে খায় কিনা, দিনে ৬-৮ বার প্রস্রাব করে কিনা ইত্যাদি। এগুলো ঠিক আছে এবং শরীরে জ্বর না থাকলে বাচ্চার জন্য তা সাধারণ ব্যাপার। এক্ষেত্রে বাচ্চা দিনে ১৫-২০ বার পায়খানা করলেও তা তার জন্য স্বাভাবিক।

শুধু দুটি জিনিস খেয়াল রাখতে হবে। তাহলো, বাচ্চার ওজন ঠিকমতো বাড়ছে কি না এবং সে দিনে কতবার প্রস্রাব করছে? ওজন ও প্রস্রাব ঠিক থাকলে, বাচ্চা স্বাভাবিক খেলাধুলা করলে এবং অন্য কোনো উপসর্গ যদি না থাকে, তাহলে মা-বাবার দুশ্চিন্তার দরকার নেই। করোনা মহামারির মধ্যে বাচ্চাকে নিয়ে চিকিৎসকের কাছে ছুটে আসার প্রয়োজন নেই।

সূত্র: ডক্টর টিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here