Thursday, May 23, 2024
spot_img
Homeবিনোদনযে নাটকের জন্য ভোর ৪টায় কারওয়ান বাজারে গিয়ে মাছ কাটা শিখেছেন তটিনী

যে নাটকের জন্য ভোর ৪টায় কারওয়ান বাজারে গিয়ে মাছ কাটা শিখেছেন তটিনী

কারওয়ান বাজারে অন্যতম পরিচিত দৃশ্য মাছ কাটিয়ে নেওয়া। বঁটি নিয়ে বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ সারিবদ্ধ হয়ে বসে থাকেন মাছ কাটার জন্য। ক্রেতারা মাছ কেনার পর সেখান থেকে মাছ কাটিয়ে নেন। এবার এমনই এক চরিত্রে দেখা গেছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিম সাইয়ারা তটিনীকে। ‘রঙিন আশা’ শিরোনামের নাটকে মাছ কাটা এক তরুণীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী। কিছুদিন আগেই শেষ হয়েছে নাটকটির শুটিং।

অপূর্ণ রুবেলের গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন রাফাত মজুমদার। নাটকে মাছ কাটার দৃশ্যটুকু বাস্তবে তুলে ধরতে সত্যিকারের কারওয়ান বাজারের মাছের আড়তকেই বেছে নিয়েছেন পরিচালক। তা জানিয়ে রাফাত বলেন, ‘কারওয়ান বাজারে মাছের আড়তে শুটিংয়ের জন্য ভোরবেলাকেই আমরা বেছে নিয়েছিলাম। শত শত ক্রেতা-বিক্রেতার ভিড়ের মধ্যেই শুটিং করেছি। একটি সত্যিকারের মাছ কাটার দোকান ভাড়া করেছিলাম। ওই দোকানে বসেই তটিনী মাছ কাটার কাজ করে শুটিং করেছেন। তটিনীকে চেনা, জানার উপায় ছিল না। মনে হচ্ছিল সত্যিকারেরই মাছ কাটার কাজ করে মেয়েটি।’

কাজটি করতে গিয়ে দারুণ সব অভিজ্ঞতা হয়েছে উল্লেখ করে তটিনী বলেন, ‘তিন দিন ভোরে আড়তে প্রায় দুই ঘণ্টা করে শুটিং করেছি। প্রতিদিনই ভোর ৪টায় ঘুম থেকে উঠে কারওয়ান বাজারে যেতে হতো। বাজারের মধ্যে উৎসুক শত শত মানুষের ভিড়ের মধ্যে শুটিং চালিয়ে নেওয়া কঠিন ছিল। শুটিং দেখার জন্য সাধারণ মানুষের কৌতূহল বেশি। তা-ও আবার কারওয়ান বাজারের মাছের আড়ত।’

‘রঙিন আশা’ নাটকের দৃশ্যে খায়রুল বাশার।
তটিনী আরও বলেন, ‘দৃশ্যগুলোতে সত্যি সত্যি মাছ কেটেছি। আমার তো এ ধরনের কাজে অভিজ্ঞতা ছিল না। বাসায় মাছ কেটেছি কয়েক দিন। শুটিংয়ের সময় আমাকে পাঁচ কেজি ওজনের মাছ কাটতে দিয়েছিল।’

‘রঙিন আশা’ নাটকের দৃশ্যে তানজিম সাইয়ারা তটিনী।
‘রঙিন আশা’ নাটকে তটিনীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন খায়রুল বাসার। চরিত্রে খায়রুল বাশার কারওয়ান বাজারে ভ্যান চালান। নাটকে স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে দেখা যাবে এই জুটিকে। নাটকটি রঙ্গন মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হবে।

RELATED ARTICLES

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments