Sunday, June 23, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলা১৬ বছরের ইয়ামালের নজরকাড়া গোলে কষ্টার্জিত জয় বার্সার

১৬ বছরের ইয়ামালের নজরকাড়া গোলে কষ্টার্জিত জয় বার্সার

প্রথমার্ধে পেনাল্টি পেয়েও মিস করলেন ইলকাই গুন্দোয়ান। দ্বিতীয়ার্ধে বার্সেলোনার বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টা প্রতিহত হয়ে গেলো মায়োর্কার রক্ষণে। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল জাভি হার্নান্দেজের দল।

১৬ বছরের লামিন ইয়ামাল বাঁচিয়ে দিলেন স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নদের। শুক্রবার রাতে ঘরের মাঠে মায়োর্কার বিপক্ষে ইয়ামালের একমাত্র গোলে ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে বার্সা।

এই জয়ে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দুই নম্বরে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। তিনে থাকা জিরোনার পয়েন্ট ৫৯।

এস্তাদি অলিম্পিক লুইস কোম্পানিস স্টেডিয়ামে দাপট দেখিয়েই খেলেছে বার্সা। ২২তম মিনিটে রাফিনহা বল নিয়ে বক্সে ঢুকে পড়লে তাকে ফেলে দেন মায়োর্কা ডিফেন্ডার মানুয়েল কোপেতে।

শুরুতে গোল কিক দিয়েছিলেন রেফারি, পরে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে মনিটরে রিপ্লে দেখে স্পট কিকের বাঁশি বাজান। পেনাল্টি শট নেন গুন্দোয়ান। কিন্তু তার শটে খুব একটা জোর ছিল না, বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে সহজেই সেটা ফিরিয়ে দেন মায়োর্কা গোলরক্ষক। ফিরতি বলে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি ইয়ামাল।

২৯তম মিনিটে রাফিনহা ও জোয়াও কানসেলোর দুটি শট প্রতিহত হয় মায়োর্কার ডি-বক্সে। ছয় মিনিট পর কাইল লারিনের হেড অনায়াসে ফিরিয়ে দেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। পাল্টা আক্রমণে ডি-বক্সের বাইরে থেকে ফেলিক্সের শট বেরিয়ে যায় পোস্ট ঘেঁষে।

প্রথমার্ধের হতাশা কাটিয়ে দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে বার্সা। ৫৭তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন ইয়ামাল। কিন্তু তার বুলেট গতির শট দুর্ভাগ্যজনকভাবে আটকে যায় ক্রসবারে।

শেষ পর্যন্ত অবশ্য হতাশ হতে হয়নি ইয়ামালকে। ৭৩ মিনিটে ডি-বক্সের ডানদিক দিয়ে ঢুকে পড়েন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। দুই ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে চমৎকার বাঁকানো শটে গোলপোস্টের কোণ দিয়ে জাল খুঁজে নেন ইয়ামাল। শেষ পর্যন্ত তার ওই গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সা।

RELATED ARTICLES

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments