Sunday, June 23, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলা২১১ রানের লিড নিয়ে বাংলাদেশকে চাপে রাখল লঙ্কানরা

২১১ রানের লিড নিয়ে বাংলাদেশকে চাপে রাখল লঙ্কানরা

সিলেট টেস্টের প্রথম দিনে পড়েছিল ১৩ উইকেট। যার মধ্যে ১০ উইকেট পেসারদের। দ্বিতীয় দিনে পড়ল আরও ১২ উইকেট। সিলেটের হালকা সবুজ উইকেটে আজকেও ছিল পেসারদের দাপট। ১০ উইকেট গেছে পেসারদেরই পকেটে। টানা দুই দিন পেসারদের এমন দাপট দেখানোর টেস্টে অবশ্য এগিয়ে গেছে শ্রীলঙ্কা। সফরকারীরা লিড নিয়েছে ২১১ রান।

লঙ্কানরা দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৫ উইকেটে ১১৯ রান নিয়ে। যার মধ্যে ৫২ রান দিমুথ করুনারত্নের। দিনের শেষ দিকে এই ওপেনারের ১০১ বলের ইনিংসটি থামান পেসার শরীফুল ইসলাম। তার আগে অবশ্য বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দেন নাহিদ রানা। বাংলাদেশের এই নতুন গতি তারকা নিশান মাদুশকাকে (১০) ফিরিয়ে সফরকারীদের দ্বিতীয় ইনিংসের ওপেনিং জুটি ভাঙেন। এরপর উইকেটরক্ষক কুশল মেন্ডিসকেও (৩) ফেরান তিনি। দুজনকেই গ্লাভসবন্দী করেন লিটন দাস।

গতকাল আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে প্রথম বল হাতে নিয়েই নাহিদ নেন ৩ উইকেট। আজ লঙ্কানদের বিপক্ষে তাঁর বোলিং ফিগার ১০-০-৪২-২। চা বিরতির আগে খাওয়া প্রথম ধাক্কাটা সামলে উঠতে না উঠতেই ৬৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় সেশনের শুরুর পরপর মেন্ডিসের বিদায়, এরপর দুই স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও মেহেদি হাসান মিরাজ এসে ফিরিয়ে দেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস (২২) ও দিনেশ চান্দিমালকে (০)। তবে ড্রিংকসের পর সেই বিপর্যয় সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন করুনারত্নে ও অধিনায়ক ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। পঞ্চম উইকেটে দুজনে গড়েন ৪৯ রানের জুটি। তবে শরীফুল সেই জুটি ভেঙে দিনের শেষটায় একটু হলেও স্বস্তি ফিরিয়েছেন স্বাগতিকদের মনে। আগামীকাল বিশ্ব ফার্নান্দোকে (২) নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামবেন ধনাঞ্জয়া (২৩)।

৯২ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে শ্রীলঙ্কা। চা বিরতির আগে তাদের লিড দাঁড়ায় ১১১ রান। এর আগে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে থামে ১৮৮ রানে। ৩ উইকেটে ৩২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করে স্বাগতিকেরা। চাপের মুখে প্রথম দিন পার করেছিলেন ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় ও তাইজুল ইসলাম। তবে দিনের শুরুতেই ভাঙে এই জুটি। ৯ রান নিয়ে দিন শুরু করা জয় ফেরেন ১২ রানে।

সতীর্থকে হারালেও একলা লড়াই করেছেন তাইজুল। গতকাল নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নামলেও আজ ৮০ বলে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে বাংলাদেশের ইনিংসটাকে যা একটু ভদ্রস্থ রূপ দেন এই স্পিনার। দিনটা শূন্য রানে শুরু করলেও দলের সর্বোচ্চ রান এসেছে তাঁর ব্যাট থেকে। ৬ উইকেটে ১৩২ রানে মধ্যাহ্নভোজে যাওয়া বাংলাদেশের পরের চার উইকেট হারাতে বেশিক্ষণ লাগেনি। দলের প্রয়োজনের ইনিংস বড় করতে পারেননি লিটন দাস (২৫) ও মিরাজের (১১) মতোন অভিজ্ঞরা। শেষ দিকে খালেদ আহমেদ ২২ রানের ইনিংস খেললেও বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থামে দুই শ পেরোনোর আগে।

দিনের শুরু থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট নিয়েছেন লঙ্কান পেসাররা। আগের দিনের তিন উইকেটের দুটি নিয়েছিলেন ফার্নান্দো। একটি ছিল লাহিরু কুমারার। আজ দুজনে নিলেন সমান দুটি উইকেট। তাদের সঙ্গে যোগ দেন কাসুন রাজিতাও। আজ এই লঙ্কান পেসার নিয়েছেন ৩ উইকেট।

RELATED ARTICLES

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments