Sunday, June 23, 2024
spot_img
Homeধর্মরমজানে দান করলে যে সওয়াব

রমজানে দান করলে যে সওয়াব

পবিত্র রমজান মাস সংযম ও সহমর্মিতার মাস। এ মাস মানুষকে দানশীলতা ও উদারতার শিক্ষা দেয়। পারস্পরিক সৌহার্দ্য ও সম্পর্ক সুদৃঢ় করার শিক্ষা দেয়।

এ মাসে বিভিন্ন সৎ ও উত্তম কাজের মাধ্যমে মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভের অফুরন্ত সুযোগ পাওয়া যায়। এ মাসে প্রতিটি ভালো কাজের নেকি ৭০ গুণ বৃদ্ধি পায়। রমজান মাসে একটি নফল আমল ফরজের সমতুল্য। সে হিসাবে রমজান মাসে প্রতিটি দান-সদকাতেই ৭০ গুণ নেকি পাওয়া যাবে এবং তা ফরজ হিসেবে আল্লাহর কাছে গণ্য হবে। দান-সদকার এমন অসামান্য ফজিলত অন্য মাসে কখনোই পাওয়া যাবে না।

রাসুল (সা.)-এর অন্যতম বৈশিষ্ট্য ছিল দানশীলতা। তিনি এতটাই দানশীল ছিলেন যে কেউ তাঁর কাছে কিছু চাইলে তিনি তাকে ফিরিয়ে দিতেন না। পবিত্র রমজান এলে রাসুল (সা.)-এর দানের মাত্রা আরও বহুগুণ বেড়ে যেত। রাসুল (সা.) মানুষকে রমজান মাসে বেশি পরিমাণে দান করতে উৎসাহিত করতেন।

সাহাবিগণ রমজান মাসে দুহাত ভরে দান করতেন। ওসমান (রা.) রমজানে প্রতিদিন গরিব-দুঃখী ও অসহায়দের মাসে এক হাজার দিনার বণ্টন করতেন। অন্য সাহাবিগণ দান-সদকার বিষয়ে একে অপরকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিযোগিতা করতেন।

আনাস (রা.) বলেন, রাসুলল্লাহ (সা.)-কে জিজ্ঞাসা করা হলো সবচেয়ে উত্তম সদকা কী? তিনি বলেন, ‘রমজান মাসের সদকা’। ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) পবিত্র রমজান মাসে বিপুল পরিমাণে দান করতেন। (সুনানে তিরমিজি: ২৩৫১)

লেখক: আমজাদ ইউনুস ,শিক্ষক ও ইসলামবিষয়ক গবেষক

RELATED ARTICLES

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments